ছাগলের ম্যা ম্যা


একদা এক ব্যক্তির খুউব শখ হইলো ছাগল পালিবে। সাত পাঁচ না ভাবিয়া সে বাজারের উদ্দেশ্যে রওনা হইলো ছাগল কিনিবার জন্য। বাজারে অনেক ঘুরিয়া সে একটা ছাগল কিনিয়াও ফেলিলো। অতঃপর ছাগল লইয়া বাড়ি ফিরিয়া আসিল।

http://www.dreamstime.com/stock-photo-image29796320

সে ছাগলের জন্য একটা ঘর বানাইলো। নতুন ঘর পাইয়া ছাগল খুশীতে ম্যা ম্যা করিয়া উঠিল। লোকটি ভাবিল তাহার ছাগল নিশ্চই অনেক আনন্দিত হইয়াছে। শুধুই কি ঘর বানাইলে চলিবে? কক্ষনো না! আর তাই এবার ছাগলের গলায় সুন্দর দেখিয়া একটা বেল্টও পড়াইয়া দিলো। বেল্টে ছাগল মোটেও অভ্যস্ত নয়। তাই আবারও ছাগল ম্যা ম্যা করিয়া উঠিল।

লোকটি ভাবিল, ছাগলের নিশ্চয়ই কোন সমস্যা আছে। নইলে সে খালি ম্যা ম্যা করিবে কেন? লোকটি বাজারের দিকে চলিল। বাজারে গিয়া সে বিক্রেতার শার্টের কলার টানিয়া ধরিল। বলিল, ‘তোমার এতো বড় সাহস! নিশ্চই তুমি আমাকে ছাগলের তিন নাম্বার বাচ্চা ধরাইয়া দিয়াছো।’

বিক্রেতা বুঝিল, এই লোকের ছাগল সম্পর্কে বিন্দু বিসর্গ ধারণা নাই। সে বলিল, ‘আসলে আপনি একখান ছাগল লইয়া গিয়াছেন। এজন্যই সে একা থাকার কষ্টে ডাকিতেছে। যদি আরও একখান ছাগল লইয়া যাইতেন তাহলে ছাগল সব সময় ম্যা ম্যা করিতো না। মাঝে মধ্যে ঘেউ ঘেউ বা হাম্বা হাম্বাও করিতো।’

লোকটি ভাবিল, আসলেই। খুবই ভুল হইয়া গিয়াছে। ছাগল না হইয়াও সে ছাগলের মতই কাজ করিয়া ফেলিয়াছে।

সে আরও একখান ছাগল কিনিয়া চলিল। কিন্তু একী! দুই ছাগল মিলিয়া আরও বেশি করিয়া ম্যা ম্যা করিতে লাগিলো। ম্যা ম্যা থামানোর জন্য তাহাদের নানান রকমের ঘাস সরবরাহ করা হইলো। কিন্তু তাহাতেও তাদের ম্যা ম্যা থামিলো না।

লোকটি আশা হারাইলো না। তিনি এইবার ছাগলদিগর জন্য স্পেশাল কাঁঠাল পাতা অর্ডার দিয়া আনাইলেন। তাহাতেও কোন কাজ হইল না। ছাগলেরা সমান উৎসাহে ম্যা ম্যা করিতে লাগিলো।

ছাগলের মালিক ক্ষিপ্ত হইয়া আবার ছুটিলেন বাজারের দিকে। দূর হইতে তাহাকে দেখিয়াই ছাগল বিক্রেতা বলিল, ‘আসলে আমারই ভুল হইয়াছিল। আমি বলিতে ভুলিয়া গিয়াছিলাম যে ছাগল পালিতে হইলে কমপক্ষে তিনটি ছাগল প্রয়োজন। নচেৎ ছাগল ম্যা ম্যা করিবে।’

কি আর করা! অগ্যতা আরও একটি ছাগল কিনিয়া আসিলেন তিনি। এবার তিন ছাগলের বদৌলতে সারা বাড়িময় ম্যা ম্যা বাতাস বহিতে লাগিলো। হতাশ মালিক এইবার ছাগলদের নানান ধরনের ফাস্ট ফুড গিলাইতে লাগিলেন। ফাস্ট ফুড খাইয়া ছাগলেরা আর বেশি করিয়া ম্যা ম্যা করিতে লাগিলো।

এবার আর মালিকের ধৈর্যে কুলাইলো না। তিনি ছাগল তিনটিকে লাঠি দিয়া পিটাইতে লাগিলেন। ছাগলেরা চিৎকার করিয়া ম্যা ম্যা করিতে লাগিল। ম্যা ম্যা করিতে করিতেই ছাগলেরা মরিয়া গেলো।

মুল কথা: যত যা-ই করা হোক না কেন। জাত আপনা হইতেই তাহার পরিচয় জানান দিয়া যাইবে।

One response to “ছাগলের ম্যা ম্যা

  1. পিংব্যাকঃ ছাগলের ম্যা ম্যা | যুক্তিবাদী

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s